1. syedmonir1985@gmail.com : DAINIKPOTRIKA :
  2. dainikpotrikainfo@gmail.com : Central Newsroom : Central Newsroom
  3. dainikpotrikabd@gmail.com : Central newsroom : Central newsroom
  4. dainikpotrikaads@gmail.com : News Room USA : News Room USA
ঈদ নাকি মৃত্যু? - দৈনিক পত্রিকা
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৩:৩২ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
ছন্দের তালে নৃত্যে আনন্দে ভারত-বাংলাদেশের অংশগ্রহনে নৃত্য ছড়াওকবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগীতা-২০২১

ঈদ নাকি মৃত্যু?

আল-আমিন, বিশেষ প্রতিনিধি
  • প্রকাশ কালঃ সোমবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ৭৭ বার দেখা হয়েছে
নগর পুড়লে দেবালয় এড়ায় না- এই প্রবাদ সত্যি হতে দেখা কেমন ভয়ংকর জানেন? গার্ডিয়ান রিপোর্ট করেছে- ভারতের উত্তর প্রদেশে বিজেপির এমপি পরিবহন মন্ত্রী বিজয়কুমার সিং তার ভাইয়ের জন্য বেড না পেয়ে টুইটারে পোস্ট দিয়েছেন। অথচ এই জানুয়ারি মাসেই বিজেপির এরা দল বেঁধে করোনার বিরুদ্ধে বিজয় ঘোষণা করে ফেলে ছিলেন।
দিল্লির অনেক হাসপাতাল দরজায় লিখে রেখেছে অক্সিজেন সরবরাহ নাই বলে রোগী ভর্তি নিতে পারবেনা। শ্মশানে ঠাঁই না পেয়ে লাশ পোড়াতে হচ্ছে ফুটপাতে। এমনকি মুসলমানদের অনেকে জাত-পাত ভুলে লাশ পোড়াচ্ছে। পুরো দুনিয়ার গণমাধ্যম ধুমায়ে গালাগালি দিচ্ছে মোদীর ইন্ডিয়াকে৷ অবস্থা কতোটা ভয়ংকর হইছে তা কি বুঝতে পারছেন?
নরেন্দ্র মোদী নির্বাচনের প্রচারণার সময় প্রচারণা করেছেন মাস্ক ছাড়া, সেই প্রচারণায় তিনি বলেছেন- এতো মানুষের ভীড় তিনি আগে দেখেন নাই! অথচ সেদিন ভারতে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ হয়েছে! অমিত শাহ আর মোদী যেদিন জনসভা করেছেন সেদিন সারা ভারতে মারা গেছে ১৩৪১ জন আর নতুন ২,৩৪,০০০ জন পজিটিভ। ২৪ এপ্রিল শনিবারে সারাদিনে মৃত্যু হয়েছে ২৭৬১ জন এবং ২৫ এপ্রিল রবিবারে মৃত্যু হয়েছে ২৮০৬ জন। শনাক্ত বেড়ে গড়ে হয়েছে ৩ লক্ষ্যেরও বেশি। (সূত্রঃ mohfw.gov.in)
অন্ধত্ব আর লোভ কোথায় নিয়ে যায় মানুষকে তা কি বুঝতে পারছেন?
ভিসুভিয়াস যখন লাভা উদগীরণ শুরু করে তখন পম্পেই নগরীতে উৎসব চলছিলো শহর ধ্বংসের কয়েক মিনিট আগেও। অথচ কয়দিন আগেই কুম্ভমেলায় ভারতের ৫০ লক্ষ্য মানুষ এক হয়েছেন এবং হিন্দুত্ববাদী সরকার হওয়ায় সেটা ঠ্যাকাবার চেষ্টাও করে নাই! সেইসব ছবি দেখে শিউরে উঠতে হয়, বেশিরভাগই মাস্ক পরে নাই৷ ধরে নিয়েছে ভগবান বাঁচাবে। এখন তারা অক্সিজেনের জন্য কাতরাচ্ছে কেন বলতে পারেন?
কয়দিন পর ঈদ, দয়া করে, আল্লাহ বাঁচাবে ধরে নিয়েন না। নিজের ভাগ্য নিজেকেই গড়ে নিতে হয়, আল্লাহ আমাদের গড়ে নেওয়া ভাগ্যের ফল দেন। এই দূর্যোগের সময় হয়ে প্রত্যেক ঘরে ঘরে গড়ে উঠুক নামাজ ঘর বা ইবাদতের স্থান। অন্ধ বিশ্বাসী হলেও ধরে নেন ঈশ্বর আপনার বুদ্ধির পরীক্ষা নিচ্ছেন!
বরং ঈদের মার্কেটের পরিবর্তে আশেপাশের গরীবদের মাঝে কিছু সাহায্য করি৷ ঈদের ইবাদত আর আনন্দ হোক সাহায্য করায়, মাস্ক পরায়, হাতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করায়। এই রাষ্ট্র অসুস্থ হলে আপনাকে হাসপাতালে সিট নাও দিতে পারে – সেই বিষয়ে সচেতন হয়ে প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহিরে  বের হয়েন না৷ বর্তমান সময়ে মার্কেটের দোকানপাট খুলে দেওয়া মানে অন্যের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলার সুযোগ তুলে নেয়া নয়! গরীবের রিকশা না উল্টে নিজেদের স্বভাব উল্টো না করলে, তাদের বাড়িতে খাবার না পৌঁছে দিলে আগামী ঈদ হবে নতুন কুম্ভমেলা!
যেকোনো সংকটে ধর্ম, জাতীয়তাবাদের মুখোশ খুলে যায়, বেরিয়ে আসে মানুষের আসল পরিচয়। ভারতীয় মুসলমানরা মসজিদে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খুলছেন, হিন্দুরা মন্দিরের প্রার্থনা হিসেবে বেছে নিয়েছেন সেবাকে।
 বর্তমানে টুইটারে পাকিস্তানের এক নম্বর ট্রেন্ড- #Indianeedsoxygen। চিরদিনের শত্রু পাকিস্তানের সাধারণ মানুষ আর এনজিওগুলো সাহায্য পাঠাতে চাইছে,  দরকার হলে সেইসব ছবি দেখে আসেন। দেখে আসেন মানুষ কি অসহায় হয়ে রাস্তায় অক্সিজেন সিলিন্ডার জাপটে ধরে আছে পড়ে আছে। ভারতের ট্র‍্যাজেডি কেমন- সেটা বুঝতে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের ছবি ও প্রতিবেদন দেখেন।
 #Bdneedsoxygen লেখার জন্য প্রস্তুতি না নিয়ে সামান্য সচেতন হন৷ প্রয়োজন না পড়লে বাইরে বের হবেন না। ভারতের হরিয়ানা রাজ্য তাদের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে, আমাদের দেশের বর্ডারও আজ সোমবার থেকে বন্ধ থাকবে৷
প্রতিবছর বাংলাদেশ থেকে চিকিৎসা খাতে সবচেয়ে বেশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে ভারত৷ চিকিৎসা করতে ভারত যাওয়া ব্যক্তিরা মনে রাখেন- এতো উন্নত চিকিৎসা নিয়েই যেখানে ভারত পারছেনা, সেখানে ঈদের মার্কেট করতে বেরিয়ে পড়বেন না। এতো ভালো চিকিৎসা খাত নিয়েও ভারত যে বিপদে পড়েছে তা দেখে আমাদের শেখা উচিত। নিজেকে বলেন- পরের ঈদ করার জন্য এই ঈদটা বিসর্জন দিলাম!
পাশের দেশে মৃত্যুর উৎসব দেখেও কি আমাদের উৎসবটা সীমিত করা যায় না? মরা বাড়ির পাশে বিয়ে বাড়ির গান কি না বাজালেই হয় না? ঈদ গেলেতো ঈদ পাবো, কিন্তু প্রাণ গেলে কি প্রাণটা আর কখনো ফেরত পাবো? তাই সময় থাকতে নিজে সচেতন হন ও অন্যদের কেউ সচেতন করুন।

গুরুত্বপূর্ণ সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© সর্বস্বত্ত্ব ২০১৯-২০২১
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardainikp1
ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । দৈনিক পত্রিকা কতৃপক্ষ
%d bloggers like this: