1. syedmonir1985@gmail.com : DAINIKPOTRIKA :
  2. dainikpotrikainfo@gmail.com : Central Newsroom : Central Newsroom
  3. dainikpotrikabd@gmail.com : Central newsroom : Central newsroom
  4. dainikpotrikaads@gmail.com : News Room USA : News Room USA
বোরো ধানের বাম্পার ফলন পেয়ে কৃষকের মুখে হাসি - দৈনিক পত্রিকা
বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৭:০৯ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
ছন্দের তালে নৃত্যে আনন্দে ভারত-বাংলাদেশের অংশগ্রহনে নৃত্য ছড়াওকবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগীতা-২০২১

বোরো ধানের বাম্পার ফলন পেয়ে কৃষকের মুখে হাসি

শেরপুর সংবাদদাতা
  • প্রকাশ কালঃ শুক্রবার, ৭ মে, ২০২১
  • ৮১ বার দেখা হয়েছে

শেরপুরে এখন পুরোদমে চলছে বোরো ধান কাটা ও মাড়াই কাজ। মাঠে এবং বাড়ীতে ধান কাটা ও মাড়াই কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষান কৃষানীরা। এবছর ফলন ভাল হওয়ায়র পাশাপাশি বাজারে ধানের দাম‌ও ভাল। মাড়াই মৌসুমে অন্যান্য বছরের তুলনায় আবহাওয়া সম্পূর্ণ অনুকূলে রয়েছে। ফলে কৃষকদের চোখেমুখে হাসি ফুটে উঠেছে। গত আমন মৌসুমে প্রাকৃতিক দুর্যোগে জেলায় আমন ধানের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল। কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর সুত্রে জানা গেছে,গত আমন মৌসুমে জেলায় আমন ধান রোপনের লক্ষমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছিল ৯২হাজার ৪৯৫ হেক্টর জমিতে। সেই লক্ষমাত্রা অর্জিত হলেও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া, অবিরাম বর্ষন ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে আমন ফসলের ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়। এতে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ব্যাহত হয়েছে এবং জেলায় কৃষকদের প্রায় ২৫ কোটি টাকা মূল্যের আমন ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এই ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কৃষকদের বোরো আবাদে উৎসাহিত করতে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর কৃষকদের মাঝে প্রনোদনা হিসাবে বোরো মৌসুমের জন্য বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করেন। ফলে আমন মৌসুমের ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে বোরো চাষে কোমর বেধে মাঠে নামেন জেলার কৃষক। এখন তারা উৎপাদিত ধান কাটা ও মাড়াই কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। মাঠে মাঠে চলছে এখন বোরো ধান কাটা ও মাড়াই কাজের ধুম। ইতিমধ্যেই জেলার প্রায় ৬০ শতাংশ ফসল মাড়াই সম্পন্ন হয়েছে।কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ধানের ফলন বেশ ভাল হয়েছে। বাজার মূল্য‌ও ভাল পাচ্ছেন। এছাড়াও সরকারী ভর্তুকি মূল্যে ধান কাটা ও মাড়াই এর জন্য বিতরণ করা হার্ভেষ্টার ব্যাবহার করে দ্রুত মাড়াই কাজ এগিয়ে চলছে। আবহাওয়া বেশ ভাল,সব মিলিয়ে কৃষক খুশি।

চলতি বোরো মৌসুমে কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর জেলার ৫ টি উপজেলায় ৯০ হাজার ৪৫০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধারন করে। উপজেলা ভিত্তিক লক্ষমাত্রা ধরা হয় সদর উপজেলা ২৪ হাজার ৩৩৫ হেক্টর। শ্রীবরদী উপজেলা ২৬ হাজার ৮০৭ হেক্টর,ঝিনাইগাতী উপজেলা ২৩ হাজার ১৬২ হেক্টর। নালিতাবাড়ি উপজেলা ২২ হাজার ৭৫১ হেক্টর। নকলা উপজেলায় ১৩ হাজার ৩৯৫ হেক্টর। জানা গেছে,পাওয়ার টিলারসহ অন্যান্য পর্যাপ্ত কৃষি যন্ত্রপাতি ছিল। সেচ সংকট মোকাবেলায় ৪ টি রাবারড্যাম, ৩০৫ টি গভীর নলকূপ ও ২৭৭টি এলএলপি প্রস্তুত রাখা হয়। সূত্র জানায়, সার,বীজ ও কীটনাশকের যোগান দিতে ৫৯ জন বিসিআইসি ডিলার ১২৫ জন বিএডিসি ডিলার,১৫৮ জনবি এডিসি বীজ ডিলার ও খুচরা সার বিক্রেতা ৪৫৭ জন, কীটনাশক ডিলার‌ আছে পাইকারি ২৮ জন ও খুচরা ৯৯২ জন।
জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর খামার বাড়ির উপ পরিচালক ড,মোহিদ কুমার দে বলেন, টেকসই ও লাভজনক ফসল উৎপাদন বৃদ্ধিতে ফলপ্রসু বিকেন্দ্রিকৃত এলাকা ভিত্তিক চাহিদা নির্ভর সমন্বিত কৃষি সেবা প্রদানের মাধ্যমে সকল কৃষকদের প্রযুক্তি ঞ্জান ও দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষনের পাশাপাশি ১৩৬ জন উপসহকারি কৃষি অফিসার নিয়মিত পরামর্শ দিচ্ছেন কৃষকদের। তিনি বলেন প্রস্তুতি অনুযায়ী বোরো আবাদ হয়েছে।

খাদ্যে উদ্বিত্ত্ব এ জেলায় কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের হিসাব মতে ২৫ লাখ লোকের চাহিদা (২ লাখ ৪৮ হাজার ২৬৪ মেট্রিকটন) প্রায় ৩ লাখ মেট্রিক টন উদ্বিত্ত্ব থাকবে। ইতিমধ্যেই সরকারী খাদ্য গুদামে কৃষকদের নিকট থেকে সরাসরি বোরো ধান ক্রয় উদ্বোধন করেছেন সদর আসনের এমপি জাতীয় সংসদের সরকারী দলের হুইপ আতিউর রহমান আতিক। মাড়াই মৌসুমে মাঝপথেই সরকারী ধান ক্রয় শুরু হ‌ওয়ায় বাজার মূল্য নিয়ে কৃষকের কোন শঙ্কা নেই। তবে আবহাওয়ার খবরে তাদের মধ্যে উদ্বেগ উৎকণ্ঠা রয়েছে। কৃষকের এখন একটাই প্রার্থনা আবহাওয়া যেন ভাল থাকে,ঝড় শিলাবৃষ্টি যেন না হয়।

গুরুত্বপূর্ণ সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ
© সর্বস্বত্ত্ব ২০১৯-২০২১
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazardainikp1
ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । দৈনিক পত্রিকা কতৃপক্ষ
%d bloggers like this: